বাঁচানো গেল না মৌলভীবাজারের সেই জোড়া শিশুকে

বিশেষ প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার জুয়েল-তাহমিনা দম্পতির পেট জোড়া লাগানো জমজ শিশুর মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (১৯ মে) রাত ৯টার দিকে ঢাকায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাদের মৃত্যু হয়।

এ তথ্য শিশু নিশ্চিত করেছেন শিশু দুটির বাবা জুয়েল আহমদ।

শিশু দুটির চিকিৎসার যে ব্যয়, সেটি বহনের ক্ষমতা ছিল না তাদের। তার সন্তান দুটির চিকিৎসার ব্যাপারে তিনি প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা চেয়েছিলেন। কিন্তু শেষমেশ তাদের বাঁ’চানো গেল না।

মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমসেরনগর ইউনিয়নে বসবাস করেন জুয়েল তাহমিনা দম্পতি। জুয়েল পান দোকানদার।জুয়েল আহমদ বলেন, জন্মের পর থেকেই আমরা দুশ্চিন্তার মধ্যে ছিলাম। আমার বাচ্চা দুটিকে বাঁচানোর জন্য ঢাকা শিশু হাসপাতালে নিয়ে আসি। ডাক্তাররা জানিয়েছেন যে একটা হার্ট আছে তাদের। অপারেশন করলে বাঁচানো সম্ভব। আজ সকালে একজন বড় ডাক্তার এসে দেখার কথা ছিল। কিন্তু তারা পৃথিবী থেকে চলে গেল।

উল্লেখ্য, ৫ মে মৌলভীবাজার শহরের জান্নাত প্রাইভেট মেডিকেল হাসপাতালে জুয়েল-তাহমিনা দম্পতির ঘরে জন্ম নেয় জোড়া লাগানো জমজ শিশু। নবজাতকদ্বয়ের সুচিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীসহ বিভিন্ন মহলের কাছে সাহায্য চাওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *