কুলাউড়ায় আটক দুই ভারতীয় নাগরিককে স্বদেশে ফেরত

কুলাউড়া প্রতিনিধি : কুলাউড়ার চাতলাপুর সীমান্ত এলাকা থেকে অবৈধ অনুপ্রবেশের দায়ে আটক দুই ভারতীয় নাগরিক রাজিব দেববর্মা (৩৪) ও গুরুপদ দেববর্মা (৪২) কে দীর্ঘ ৯ মাস পরে তাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হয়েছে। রোববার (১২ ডিসেম্বর) দুপুরে ওই দুইজনকে উপজেলার চাতলাপুর সীমান্ত দিয়ে বিজিবি-বিএসএফের উপস্থিতিতে ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে বাংলাদেশের ইমিগ্রেশন পুলিশ। পরবর্তীতে ত্রিপুরা রাজ্যের কৈলাশহর ইমিগ্রেশন পুলিশ আইনি প্রক্রিয়া শেষে তাদেরকে নিজ নিজ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। এসময় তাদের স্ত্রী, সন্তান ও পরিবারের স্বজনরা আবেগে আপ্লুত অবস্থায় অশ্রুসিক্ত হয়ে কান্নায় ভেঙে পরেন এবং তাদের জড়িয়ে ধরেন।
প্রত্যাবাসনকালে উপস্থিত ছিলেন, ত্রিপুরা রাজ্যের আদিবাসী কল্যাণমন্ত্রী মেবর কুমার জামাতিয়া, ভারতীয় হাইকমিশন সিলেট এর সেকেন্ড সেক্রেটারি শ্রী সঞ্জীব কুমার, কন্সুলার জীবন দেব, মৌলভীবাজার জেলা কারাগারের জেলার আবু মুসা, সমাজকর্মী ও মৌলভীবাজার সদর উপজেলার সহকারী যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা অমলেন্দু কুমার দাশ, ত্রিপুরা রাজ্যের খোয়াই জেলার সাংবাদিক মশাহিদ আলী, ডিএসবি সদস্য সারোয়ার কবির, পুলিশের এসআই এরশাদুল হকসহ উভয় দেশের ইমিগ্রেশন অফিসার, বিজিবি ও বিএসএফ কমান্ডারগণ।
সূত্র জানায়, চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি কুলাউড়া উপজেলার চাতলাপুর সীমান্ত দিয়ে পাসপোর্ট ছাড়া অবৈধভাবে বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করেন ত্রিপুরা রাজ্যের খোয়াই জেলার চম্পাহাওড় থানার বিডওয়াবিল গ্রামের বাসিন্দা সুরেশ দেববর্মার ছেলে রাজিব দেববর্মা ও একই গ্রামের বাসিন্দা জোস দেববর্মার ছেলে গুরুপদ দেববর্মা। এ সময় চাতলাপুর বিজিবি ক্যাম্পের সদস্যরা তাদের আটক করে জেলহাজতে পাঠায়। পরে আদালত ৩ নভেম্বর তাদের ৫শত টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে তিন দিনের জেল প্রদান করেন। এরপর থেকে ৯ মাস তারা দু’জন মৌলভীবাজার কারাগারে কারাভোগ করেন। পরে জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান ও জেল সুপার মোঃ আনোয়ারুজ্জামানের সহযোগিতায় সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরে আবেদন করা হলে দু’দেশের হাইকমিশন আটক রাজিব দেববর্মা ও গুরুপদ দেববর্মাকে ভারতে ফেরত পাঠানোর উদ্যোগ গ্রহণ করে।
প্রত্যাবাসনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মৌলভীবাজার জেল সুপার মোঃ আনোয়ারুজ্জামান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *