গালতিয়ের প্রেরণা দি মাত্তেও

অনলাইন ডেস্ক :

চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জিততে একের পর এক সফল ও পরীক্ষিত কোচ এনেও লক্ষ্য পূরণ হয়নি পিএসজির। প্রিমিয়ার লিগের দল চেলসিকেও একসময় যেতে হয়েছিল এমন সময়ের মধ্য দিয়ে। এরপর চমক দেখিয়ে তাদের ইউরোপ সেরার ট্রফি এনে দিয়েছিলেন রবের্তো দি মাত্তেও। প্যারিসের দলটিকে ইউরোপ সেরা করতে নতুন কোচ ক্রিস্তফ গালতিয়ে প্রেরণা মানছেন ওই ইটালিয়ান কোচকে। গালতিয়ে মনে করেন, চেলসিতে দি মাত্তেও যা করে দেখিয়েছিলেন, পিএসজিতে তেমন কিছু করতে পারবেন তিনিও। চলতি মাসের শুরুতে নিসের সাবেক কোচ গালতিয়ের সঙ্গে ২০২৪ সালের জুন পর্যন্ত চুক্তি করে পিএসজি। ১৯৯৯ থেকে ২০০৯ পর্যন্ত বেশ কয়েকটি ক্লাবে সহকারী কোচের দায়িত্ব পালন করেন গালতিয়ে। এরপর ২০০৯ সালে সাঁত এতিয়েনের প্রধান কোচ হিসেবে দায়িত্ব পান তিনি। তার কোচিংয়ে ক্লাবটি ৩২ বছরের শিরোপা খরা কাটায় ২০১৩ সালে ফরাসি লিগ কাপ জিতে। দলটিকে তিনি ফেরান ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায়ও। এরপর ২০১৭ সালে গালতিয়ে দায়িত্ব নেন লিলের। তার হাত ধরে বদলে যায় দলটি। ২০১৯ সালে লিগ ওয়ানে রানার্সআপ হয় লিল। পরের বছর তারা লিগ শেষ করে চতুর্থ স্থানে থেকে। ২০২১ সালে পিএসজিকে পেছনে ফেলে তারা জিতে নেয় লিগ শিরোপা। কোচ হিসেবে রেকর্ডটা মন্দ না হলেও পিএসজির মতো তারকা সমৃদ্ধ একটি দল সামলানো গালতিয়ের জন্য কঠিন দায়িত্ব হতে যাচ্ছে। কেননা আগে তিনি যে দলগুলোর কোচ ছিলেন, সেখানে পিএসজির মতো এতটা প্রত্যাশার চাপ ছিল না। বিশেষ করে অধরা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জয়ের জন্য দলটির যে তাড়না, যা পূরণ না করতে পেরে দলটির ডাগআউট থেকে বিদায় নিয়েছেন বেশ বড় কিছু নাম। এই তালিকায় রয়েছে কার্লো আনচেলত্তি, লরা ব্লাঁ, উনাই এমেরি, টমাস টুখেল ও মাওরিসিও পচেত্তিনো। লিগ ওয়ান জেতালেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ব্যর্থতায় মূলত তাদের বিদায় নিতে হয়েছে পিএসজি থেকে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার জন্য একটা সময় এভাবে বার বার কোচ বদল করেছিল চেলসিও। অবশেষে ২০১২ সালে ইউরোপ সেরার মঞ্চে তাদের শিরোপা এনে দেন শুরুতে অস্থায়ীভাবে দলটির দায়িত্ব পাওয়া দি মাত্তেও। লেকিপের সংগে শনিবার এক আলাপচারিতায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার চ্যালেঞ্জে গালতিয়ে টেনে আনেন ইটালিয়ান কোচের ওই কীর্তি। “আপনি কি জানেন চেলসিকে প্রথম চ্যাম্পিয়ন্স লিগ কে জিতিয়েছিল? দি মাত্তেও। (চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার ব্যাপারে) কেউ কি তার ওপর নূন্যতম বাজিও ধরেছিল?” “আমি খুব উচ্চাকাক্সক্ষী। আমি প্যারিসে জিততে এসেছি। ঘরোয়া তিনটি শিরোপা রয়েছে, আমাদের তা জিততে হবে। আমাদের রেকর্ড ভাঙতে হবে। আর বিনয়ের সঙ্গে বলতে চাই: আমি প্যারিসে সবকিছু জিততে এসেছি।” দি মাত্তেওকে অনুপ্রেরণা হিসেবে নিলেও গালতিয়ে চাইবেন পিএসজিতে তার ভবিষ্যৎ যেন চেলসিতে ইটালিয়ান কোচের মতো স্বল্পমেয়াদী না হয়। ২০১২ সালের মার্চে স্ট্যামফোর্ড ব্রিজের দায়িত্ব পেয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের পাশাপাশি এফএ কাপও জিতেছিলেন দি মাত্তেও। এর প্রেক্ষিতে স্থায়ীভাবে নিয়োগ পান তিনি। কিন্তু ২০১২-১৩ মৌসুমের শুরু থেকে চেলসির ধারাবাহিক ব্যর্থতার জন্য ২০১২ সালের নভেম্বরেই দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় তাকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *