শ্রীমঙ্গলে কাতার প্রবাসী গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি: শ্রীমঙ্গল উপজেলার ভূনবীর ইউনিয়নে ঘর থেকে কাতার প্রবাসি আকলিমা বেগম (২৬) নামে এক গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনা পর থেকে নিহতের স্বামী পারভেজ মিয়া পলাতক রয়েছেন। ১৮ জুলাই সোমবার দুপুরে শ্রীমঙ্গল উপজেলাধীন ভুনবীর ইউনিয়নের মাধবপাশা গ্রামের নিজ বসত বাড়ি থেকে তার মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। আকলিমা মাধবপাশা গ্রামের আবুল কাশেমের মেয়ে। আকলিমার স্বামী বাড়ি চাঁদপুর জেলার কচুয়া উপজেলার চকরা গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে।

নিহত আকলিমা বেগমের চাচাতো ভাই রুবেল মিয়া জানান, আকলিমা ও পারভেজ তারা দুজনে সৌদি আরবে চাকরি করতেন। সেখানে চাকুরির সুবাধে তারা প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এক পর্যায়ে গত চার বছর আগে সৌদি আরবে পারভেজ আকলিমাকে বিয়ে করেন। সৌদি আরব থেকে আকলিমা ও পারভেজ দুজনে দেশে চলে আসলে, কিছুদিন দেশে থাকার পর তার স্বামী পারভেজকে বাড়িতে রেখে আকলিমা কাতারে চলে যায়। সেখানে ১৮ মাস চাকরী করে চলতি মাসের ১৫ জুলাই দেশে ফিরেন আকলিমা। দেশে আসার পর থেকে কাতার থেকে পাঠানো টাকার হিসাব চান আকলিমা তার স্বামী পারভেজের কাছে। পারভেজ সব টাকা খরচ করে ফেলেছে বলে আকলিমাকে জানান। এ নিয়ে স্বামী ও স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়াবিবাদ সৃষ্টি হয়। রবিবার রাতেও তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়।

আকলিমার প্রতিবেশী আলমগীর মিয়া জানান, আকলিমার মা সকালে এসে দেখে তাদের ঘরের দরজায় তালা দেওয়া। পরে তালা ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে দেখতে পায় আকলিমার মৃতদেহ পড়ে আছে ফ্লোরে। আকলিমার মা’র চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন জড়ো হন। পরে থানা পুলিশকে খবর দেয়।

শ্রীমঙ্গল থানার ওসি (তদন্ত) জানান, স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারি রাতে স্বামী-স্ত্রীর মাঝে বাকবিতন্ডা মারামারি হয়েছে। নিহত আকলিমার গলায় রক্ত জমাট দাগ রয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মৌলভীবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। তবে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর প্রকৃত কারণ জানা যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *