বিশ্বের বয়স্ক দৈত্যাকার পুরুষ পান্ডার মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক :

বিশ্বের সবচেয়ে বয়স্ক দৈত্যাকার পুরুষ পান্ডার মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) হংকংয়ের একটি বিনোদন পার্কের চিড়িয়াখানায় এর মৃত্যু হয়। খবর বিবিসির।ওই পান্ডাটির নাম ছিল অ্যান অ্যান। তার বয়স হয়েছিল ৩৫ বছর।অ্যান অ্যান ও জিয়া জিয়াকে (নারী পান্ডা) ১৯৯৯ সালে চীনের কেন্দ্রীয় সরকার হংকংকে উপহার দিয়েছিল।ওশেন পার্ক কর্তৃপক্ষ জানায়, সম্পূর্ণরূপে কঠিন খাবার গ্রহণ বন্ধ করা এবং শুধুমাত্র পানি ও ইলেক্ট্রোলাইট পানীয়ের উপর নির্ভর করার আগে পান্ডার খাদ্য গ্রহণ ক্রমান্বয়ে হ্রাস পেয়েছিল।ওশেন পার্ক করপোরেশনের চেয়ারম্যান পাওলো পং বলেন, অ্যান অ্যান আমাদের জন্য অসংখ্য হৃদয়-উষ্ণ মুহূর্ত নিয়ে এসেছে। তার চতুরতা ও খেলাধুলা আমরা খুব মিস করব।শিচুয়ানে জন্ম নেওয়া অ্যান অ্যান তার সঙ্গীর সঙ্গে ১৯৯৯ সালে হংকংয়ে আসে। তার নারী সঙ্গী জিয়া জিয়া ৩৮ বছর বয়সে ২০১৬ সালে মারা যায়। সে ছিল সবচেয়ে বয়স্ক নারী পান্ডা।ওশেন পার্ক চিড়িয়াখানায় বর্তমানে ইং ইং এবং ল ল নামে দুটি পান্ডা রয়েছে।স্বাভাবিকভাবে বনে থাকলে পান্ডারা গড়ে ২০ বছরের কম সময় বাঁচে। তবে বন্দি অবস্থায় তারা বাঁচে আরও বেশি সময়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *