মেরিনা চা-বাগানের টিলা কেটে রাস্তা নির্মাণ, এক লক্ষ টাকা জরিমানা

জেলা প্রতিনিধি, মৌলভীবাজার :

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়নে অবস্থিত মেরিনা চা-বাগানে পরিবেশ আইনের তোয়াক্কা না করে টিলা কেটে প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তা তৈরি করার অপরাধে বাগান কর্তৃপক্ষকে এক লক্ষ টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর। ২১ জুলাই বৃহস্পতিবার দুপুরে পরিবেশ অধিদপ্তর সিলেট বিভাগীয় কার্যালয়ে এ বিষয়ে শুনানী অনুষ্ঠিত হয়। শুনানীতে এই জরিমানা করেন পরিবেশ অধিদপ্তরের বিভাগীয় কার্যালয়ের পরিচালক মোহাম্মদ এমরান হোসেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন অধিদপ্তরের বিভাগীয় সহকারী পরিচালক মাইদুল ইসলাম, মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক বদরুল হুদা। এর আগে অবাধে পাহাড়-টিলা কেটে খননযন্ত্র (এস্কোভেটর) দিয়ে বাগানের ভেতর প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তা তৈরি করার অভিযোগের সত্যতা পেয়ে গত ১৮ জুলাই মেরিনা চা-বাগানের ব্যবস্থাপককে নোটিশ প্রদান করে পরিবেশ অধিদপ্তর।

জানা যায়, গত দুই মাস ধরে মেরিনা চা-বাগানের ৮ ও ৯ নং সেকশন এলাকায় ১০-১২ টি উঁচু-নিচু টিলা কেটে প্রায় দুই কিলোমিটার রাস্তা তৈরী করা হয়। কুলাউড়া পৌরসভার উত্তর কুলাউড়ার ব্যবসায়ী ছলামত মিয়ার খননযন্ত্র (এস্কোভেটর) দিয়ে টিলা কেটে রাস্তা তৈরী করে বাগান কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও বাগানের ৯ নং সেকশন এলাকার একটি টিলার একেবারে স্থর পরিবর্তন করে তৈরীকৃত রাস্তাটি রিজার্ভ ফরেষ্ট এলাকায় নিয়ে সংযোগ করা হয়েছে। কোন স্বার্থে বাগান কর্তৃপক্ষ টিলা কেটে রাস্তা তৈরী করে রিজার্ভ ফরেষ্ট এলাকায় সংযোগ করছে, এমন প্রশ্ন ছিল বাগানের পার্শ্ববর্তী এলাকার বাসিন্দাদের। পরবর্তীতে পরিবেশ অধিদপ্তরের মৌলভীবাজার জেলা কার্যালয়ের এনফোর্সমেন্ট টীম গত ৭ জুলাই অভিযান পরিচালনা করে মেরিনা চা-বাগানে পাহাড়-টিলা কেটে রাস্তা নির্মানের সত্যতা পায়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বাগানের পার্শ্ববর্তী পাঁচপীর জালাই এলাকার কয়েকজন বাসিন্দা জানান, উচুঁ উচুঁ টিলাগুলো কাটার ফলে নিচের অনেক টিলা ধ্বসে গেছে। তাছাড়া কাটা মাটিগুলো প্রবাহমান খাল-ছড়ায় পড়ে স্বাভাবিক পানি প্রবাহে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। যার ফলে ছড়ার উপরিভাগের জমিগুলোতে পানি জমাট হয়ে অনেকের ক্ষতি হচ্ছে।

মেরিনা চা-বাগানের ব্যবস্থাপক রবিউল হাসান বলেন, আমরা এমন কোন অপরাধ করিনি। টিলা কেটে বাগানের রাস্তার সংস্কার করেছি মাত্র। তবে এক লক্ষ টাকা জরিমানার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটা আমাকে জিজ্ঞেস করছেন কেন, যারা জরিমানা করেছে তাদের জিজ্ঞেস করুন।

পরিবেশ অধিদপ্তর মৌলভীবাজার কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক বদরুল হুদা বলেন, শুনানীতে বাগানের ব্যবস্থাপক টিলা কাটার কথা স্বীকার করায় বাগান কর্তৃপক্ষকে এক লক্ষ টাকা জরিমানা করে তা আদায় করা হয়েছে। পরিবেশ ও প্রতিবেশ ব্যবস্থার ক্ষতিসাধনে কুলাউড়ায় আর কোন পাহাড়-টিলা কাটার অভিযোগ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *