সিরিয়ার খ্রিস্টান অধ্যুষিত গ্রামে রাশিয়ার বিমান হামলায় নিহত ৭

অনলাইন ডেস্ক :

সিরিয়ার পশ্চিমাঞ্চলের ইদলিব প্রদেশে খ্রিস্টান অধ্যুষিত গ্রামে রাশিয়ার বিমান হামলায় পাঁচ শিশুসহ সাতজন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরও ১৩ জন।তুর্কিয়ের সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এ তথ্য জানায়।বিরোধী বিমান পর্যবেক্ষণের তথ্য অনুযায়ী, রাশিয়ার যুদ্ধবিমান লাতাকিয়ার খমেইমিম বিমান ঘাঁটি থেকে উড্ডয়ন করে আল-ইয়াকুবিয়া ও জুদাইদা গ্রামে হামলা চালায়। দ্য হোয়াইট হেলমেটস বা সিরিয়ান সিভিল ডিফেন্সের কর্মকর্তারা বলেন, প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, পাঁচ শিশুসহ সাতজন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। এ হামলায় আহত হয়েছেন আরও ১৩ জন।২০১৭ সালে আস্তানা বৈঠকে তুর্কিয়ে, রাশিয়া ও ইরান বাশার আল আসাদের নিয়ন্ত্রণে নেই এমন এলাকায় চারটি ‘নিরাপদ অঞ্চল’ তৈরির বিষয়ে সম্মত হয়। তবুও সিরিয়ার বাহিনী, ইরান সমর্থিত সন্ত্রাসী ও রাশিয়া হামলা চালিয়ে চারটির তিনটি এলাকা দখলে নিয়েছে। এখন তারা ইদলিব দখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।যদিও তুর্কিয়ে ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধবিরতি শক্তিশালী করতে অতিরিক্ত একটি চুক্তি পৌঁছে। তা সত্ত্বেও ২০১৯ সালের মে মাসে আবারও হামলা জোরদার করা হয়। পরে ২০২০ সালের ৫ মার্চ হওয়া আরও একটি চুক্তি অনুযায়ী বর্তমানে যুদ্ধবিরতি টিকে আছে।দ্য হোয়াইট হেলমেটস বা সিরিয়ান সিভিল ডিফেন্সের কর্মকর্তারা বলেন, প্রাথমিক তথ্য অনুযায়ী, পাঁচ শিশুসহ সাতজন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। এ হামলায় আহত হয়েছেন আরও ১৩ জন।২০১৭ সালে আস্তানা বৈঠকে তুর্কিয়ে, রাশিয়া ও ইরান বাশার আল আসাদের নিয়ন্ত্রণে নেই এমন এলাকায় চারটি ‘নিরাপদ অঞ্চল’ তৈরির বিষয়ে সম্মত হয়। তবুও সিরিয়ার বাহিনী, ইরান সমর্থিত সন্ত্রাসী ও রাশিয়া হামলা চালিয়ে চারটির তিনটি এলাকা দখলে নিয়েছে। এখন তারা ইদলিব দখলের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।যদিও তুর্কিয়ে ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে রাশিয়ার সঙ্গে যুদ্ধবিরতি শক্তিশালী করতে অতিরিক্ত একটি চুক্তি পৌঁছে। তা সত্ত্বেও ২০১৯ সালের মে মাসে আবারও হামলা জোরদার করা হয়। পরে ২০২০ সালের ৫ মার্চ হওয়া আরও একটি চুক্তি অনুযায়ী বর্তমানে যুদ্ধবিরতি টিকে আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *